মাটির টানে বার বার রাজশাহীতে ফিরে আসা বরেণ্য শিল্পীর শেষ বিদায় রাজশাহীতেই হলো

মাটির টানে বার বার রাজশাহীতে ফিরে আসা বরেণ্য শিল্পীর শেষ বিদায় রাজশাহীতেই হলো। তার জন্মও ছিলো রাজশাহীর। তিনি চলে গেলেন এলাকাতেই। তাকে সমাহিত করা হবে রাজশাহীতেই।

এর আগে গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর উন্নত চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুর যান এন্ড্রু কিশোর। বিভিন্ন পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর গত ১৮ সেপ্টেম্বর তার শরীরে নন-হজকিন লিম্ফোমা নামক ব্লাড ক্যানসার ধরা পড়ে। এরপর সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক লিম সুন থাইয়ের অধীনে তার চিকিৎসা শুরু হয়। সেখানে দীর্ঘ নয় মাস চিকিৎসা শেষে গত ১১ জুন দেশে ফেরেন তিনি। এরপর রাজধানীর মিরপুরের বাসায় কয়েকদিন থাকার পর নিরিবিলি সময় কাটানোর জন্য গ্রামের বাড়ি রাজশাহীতে যান।

এন্ড্রু কিশোর ১৯৫৫ সালের ৪ নভেম্বর রাজশাহীতেই জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি মাটির টানে এই রাজশাহীতে বার বার ফিরে আসতেন। রাজশাহীর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তিনি গান গেয়ে দর্শকদের মাতিয়ে তুলেছেন বার বার। রাজশাহী ছাড়াও দেশ-বিদেশজুড়ে তার গানের কোটি কোটি ভক্ত রয়েছে।

এন্ড্রু কিশোরের দুই সন্তান রয়েছে। তারা দুজনেই অস্ট্রেলিয়াতে থাকেন। তারা ফিরে এলেই তার শেষ কৃত্তের ব্যবস্থা করা হবে। মৃত্যুর আগে কিংবদন্তী এই শিল্পী তার শেষ ইচ্ছার কথা বলে গেছেন। এন্ড্রু কিশোরের বোনজামাই ডা. প্যাট্টিক বিপুল বিশ্বাস জানিয়েছেন, মৃত্যুর আগে এন্ড্রু কিশোর নিজেই বলে গেছেন তাকে যেন মায়ের পাশেই সমাহিত করা হয়। সেই ইচ্ছায়ই মায়ের পাশেই তাকে সমাহিত করার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।